microsoft-এর ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার দুনিয়ার মিম  শিকার হয়ে এখন বর্তমানে সেটি দুনিয়া থেকে চলে গেছে। ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার একটি মাএয় কাজ ছিল সেটি হল গুগল ক্রোম ও ফায়ারফক্স ডাউনলোড করা। এর পরিবর্তে ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার জায়গা নিয়েছে মাইক্রোসফট এজ। যায় এটি বর্তমানে মজিলা ফায়ারফক্স কে অনেক পিছনে ফেলে দিয়েছে। জুলাইয়ের শেষে কম্পিউটার ব্রাউজারের লিস্টে প্রথমে ক্রোম ব্রাউজার দ্বিতীয় রয়ছে মাইক্রোসফট এজ আর মজিলা ফায়ারফক্স এক কদম পিছিয়ে তিন নাম্বারে অবস্থান করছে।

বর্তমানের মার্কেটে লিডার রয়েছে গুগল ক্রোম(google chrome), আর microsoft edge-এর ও মজিলা ফায়ারফক্স এখনো অনেক দূরে রয়েছে গুগল ক্রোম থেকে মার্কেট শেয়ার হিসেবে। মার্কেট শেয়ার হবে জুলাই মাসে ক্রমের মার্কেট এর পরিমাণ 71.11%, মাইক্রোসফট এজ কাছে রয়েছে 8.09% আর মজিলা ফায়ারফক্সের কাছে রয়েছে 7.36%।

মাইক্রোসফট ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার কে বাদ দিয়ে বানিয়েছে microsoft’s এজ। microsoft’s এজ দেখতে একদম নতুন ধরনের ও বর্তমান যুগের মত কিন্তু এটি এইচটিএমএল শুধু চলত। 2019 সালে মাইক্রোসফট microsoft’s এটিকে ক্রোমিয়াম ও এসে নিয়ে গেল।

ক্রোমিয়াম কি এটি গুগলের ওপেনসোর্স কোড যার মাধ্যমে যেকোনো ব্রাউজার বানানো যেতে পারে। এটি ব্রাউজারে প্রথম ধাপ বললেই চলে। ক্রোমিয়াম ওপেন সোর্সের দ্বারাই গুগল ক্রোম অবস্থিত।

microsoft’s এজ চলিত রয়েছে windows 7, windows 10, অ্যাপেলের imac, ipad, iphone ও অ্যান্ড্রয়েডে চলছে।

যখন মাইক্রোসফ্ট মাইক্রোসফট এজ কে আপডেট দিতে শুরু করে windows 7 ওwindows 10। এর সঙ্গে এল microsoft’s এজ।

গুগল ক্রোম ও মাইক্রোসফট এজ মধ্যেখানে মজিল্লা ফায়ারফক্স কেন পিছিয়েছে। কারণ মাইক্রোসফ্ট বলেছিল যে তারা ক্রোমিয়াম os চলে যাবে এর ফলে মজিলা মাইক্রোসফট এর উপর অপবাদ লাগায় যে এর ফলে মাইক্রোসফট গুগল কে আরো শক্তিশালী করছে। এর ফলে মাইক্রোসফ বলেছিল যে এখন তত্ত্ববিদ্যা থেকে হতে হবে নিজে একাই চলাচলা থেকে একসঙ্গে হাত মিনি না ভালো। কিন্তু মাইক্রোসফট এজ এর মার্কেট শেয়ার খুব তাড়াতাড়ি বাড়ছে না।