বলিউডের অভিনেতা আমির খান তুর্কির রাষ্ট্রপতি রিচার্জ তইয়ব আরদোগান এর স্ত্রীর সঙ্গে মিলন যার নাম হল এমিন এদোগান। তুর্কি অবস্থিত ইস্তাম্বুল শহরে রাজ্য ভবনে দুজনে মেলামেশা করেন এরপর থেকেই সোশ্যাল মিডিয়াতে ছবিগুলো ভাইরাল হয়ে যায়।

আমির খান তার পরবর্তী সিনেমা লাল সিং চাড্ডা (laal singh chaddha) শুটিংয়ে তুর্কি পৌঁছালেন, করোনাভাইরাস এর জন্য সিনেমার শুটিং থামিয়ে দেওয়া হয়েছিল বাকি সিন এর শুটিংয়ের জন্য তিনি তুর্কি গিয়েছেন।

আরদোগান টুইট করে বলেছেন ফেমাস বলিউড অভিনেতা একটার ডিরেকটর আমির খানের সঙ্গে দেখা করে খুবই খুশি হচ্ছে এই জেনে খুশি যে তারা লাল সিং চাড্ডা নামে সিনেমা তুর্কির অনেক জায়গাতে শুটিং করবার জন্য এসেছেন।

তুর্কি রাষ্ট্রপতি রিচর্ড তৈয়ব এরদোগান ভারতের অনেকবার আলোচনা করেছেন CAA নিয়ে বিরোধ পরিদর্শন করা নিয়ে তিনি বলেছিলেন ভারতে এমন এক দেশ হয়েছে যেখানে গণহত্যা এক বিশাল স্তরে হচ্ছে। কাদের গণহত্যা হচ্ছে মুসলিমদের গণহত্যা হচ্ছে। ফেব্রুয়ারি মাসে দিল্লির দাঙ্গার পর আঙ্কারা তে ভাষণ দেওয়ার সময় বলেছিলেন। যখন ভারত সরকার 370 আইন জম্মু কাশ্মীর থেকে সরিয়ে নিয়েছিল তখন এরদোগান পাকিস্তানের পার্লামেন্টে বলেছিলেন আজকে জম্মু-কাশ্মীরের কথা তোই কাছে তাতেই আপনাদের মানে এখানে বুঝেছে পাকিস্তানকে। তুর্কি সবসময়ই কাশ্মীরের সমস্যা সমাধানের জন্য থাকবে। 

সেপ্টেম্বর মাসে আরদোগান ইউনাইটেড নেশনস এ জম্মু-কাশ্মীরের কথা বের করেছিলেন ওখানে তিনি তাঁর বক্তৃতায় বলেছিলেন কাশ্মীরি লোক কে তাদের পাকিস্তান ও ভারতের পরাসিদের সঙ্গে এক সুরক্ষিত ভবিষ্যৎ জন্য লড়াই ঝগড়া না করে শান্ত ও নেই এরা আধারে সমস্যার সমাধান যেন হয়।

ট্রল হওয়ার কারণ কি ছিল, যারা ট্রোল করছিল তারা আমির খানকে তার পুরনো কথা মনে করিয়ে দেই। ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী যখন ভারতে আসেন তখন তার সঙ্গে দেখা করেননি আর ইস্তাম্বুলের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করার জন্য তিনি সেখানে চলে যায়।