পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর বলেছেন যে কলকাতার রাজ্য ভবনের নজরদারিতে রাখা হয়েছে।

রাজ্যপাল বলছেন, এইসব কিভাবে করা যেতে পারে কোনোভাবেই রাজ ভবনের নজরদারি রাখা যেতে পারে না।আর যারা নজরদারি লেগেছে তাদের ওপর কড়া প্রতিক্রিয়া দেওয়া উচিত আর তাদেরকে আর সাজা দেওয়া হয়। নজরদারি দেওয়ার জন্য তাদের ওপর একটা লিস্ট তৈরি করা হয়েছে যদি খুব তাড়াতাড়ি জনগণের সামনে রাখা হবে। এই মামলাতে খুব ভালো করে যাচাই করা হবে। আর যা সত্য তা বাইরে আসে জানো। আমি এমন সব কাজ করব যেন রাজ্যে গণতান্ত্রিক শক্তিশালী হয়।

রাজ্যপাল বলল রাজ্যে যেমনভাবে এমপিও এমএলএ ওপর যেভাবে কেস করা হচ্ছে যা দেখে আমি খুব অবাক হচ্ছি। আমি পশ্চিমবঙ্গের পাঁচটি শিখর আয়োজন করেছিলাম এখানে জগদীপ ধনকর জিজ্ঞাসা করেছিলেন যে রাজ্যে কতটা বিনিয়োগ করা হচ্ছে।কিন্তু তার দাবি পশ্চিমবঙ্গ সরকার তাকে কোনো উত্তর দেয়নি  এটি রাজ্যপাল বলেছে।

এর আগে রাজ্যপাল রাজ্য ভবনে একটি শিখর আয়োজন করে যেখানে ডাকা হয়েছিল মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিকে কিন্তু মমতা ব্যানার্জি সেখানে যাননি।

এরপরে জাগদিশ ধনকার একটার পর একটা টুইট করে।

তিনি টুইট তো বলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি ও অন্যান্য নেতা রাজ্যের ভবন অনুষ্ঠিত 15 আগস্ট এর আয়োজন উপস্থিত হয়নি এর সঙ্গে আমাকে ও অন্যান্য লোকে খুব অচম্ভো হয়ে যাই, যারা দেশ স্বাধীনতার জন্য নিজের জান দিয়ে দেই তাদের জন্য আসা দরকার ছিল আমার কাছে কোন কথা নাই।

এসব বলার পর এখন পর্যন্ত মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি কোনো উত্তর আসেনি।